মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স বিভাগ

সিটিজেন চার্টার

ভিশন

মিশন

অগ্নিকান্ডসহ সকল দূর্যোগ মোকাবেলায় এশিয়ার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান হিসেবে সক্ষমতা অর্জন

অগ্নি নির্বাপন ও প্রতিরোধসহ যে কোন দূঘটনা মোকাবেলায় প্রথম সাড়াদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে অন্যান্য সংস্থার সমন্বয়ে উদ্ধার কায্য পরিচালনা করে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা এবং প্রশিক্ষণসহ অন্যান্য কাযক্রমের মাধ্যমে বেসামরিক প্রতিরক্ষা নিশ্চিত করা

অগ্নি-দুর্ঘটনা, উদ্ধার আহতসেবা

১। দুর্ঘটনার সাথে সাথে নিকটস্থ ফায়ার স্টেশন বা কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষে দুর্ঘটনার সংবাদ প্রদান করতে হবে।
২। সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে ফায়ার কর্মীগণ সাজ-সরঞ্জামাদিসহ দুর্ঘটনাস্থলে গমন করেন।
৩। যে কোন দুর্যোগে ফায়ার স্টেশন হতে সেবা পাওয়া যাবে এ জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাধীন নিকটস্থ ফায়ার স্টেশনের টেলিফোন ও মোবাইল নং ।

ফায়ার স্টেশন/দপ্তরের নাম

যোগাযোগ নম্বর

ফ্যাক্স ও ইমেইল

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন

মোবাইল ০১৭৩০০০২৫১৫ টেলিফোন ০১৮১-৫২২১২

 

শিবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন

মোবাইল ০১৭৩৫-৫৫৯২৪১ টেলিফোন: ০৭৮২৫৭৫৩১৩

 

গোমস্তাপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন

মোবাইল ০১৭৫৩-৩৮৭৯৫০

 

উপসহকারী পরিচালকের দপ্তর, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স চাঁপাইনবাবগঞ্জ

টেলিফোন: ০১৮১-৫২২১১

ফ্যাক্স: ০১৮১-৫২২১১

ইমেইল: dadchapaifire@gmail.com

manoronjohn1966@gmail.com

বিভাগীয় নিয়ন্ত্রন কক্ষ, রাজশাহী

টেলিফোন ০৭২১-৭৭৪২২৪

 


ফায়ার লাইসেন্স (অগ্নি-দুর্ঘটনা প্রতিরোধমূলক পরামর্শ সেবা)

১। স্থানীয় উপ-সহকারী /সহকারী /উপ-পরিচালক বরাবর ফায়ার সার্ভিসের নির্ধারিত ফরমপুরণপূর্বক নিম্নবর্ণিত
কাগজপত্রসহ আবেদন করতে হবেঃ
ক) ট্রেড লাইসেন্স
খ) প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ভবনে ব্যবসা পরিচালনা হলে পৌরসভা কর্তৃক প্রতিষ্ঠানের স্থাবর/অস্থাবর
সম্পত্তির বার্ষিক মূল্যায়ণ পত্র।
গ) ভাড়াবাড়িতে ব্যবসা হলে ভাড়ার চুক্তিপত্র।
ঘ) রাজউক/পৌরসভা কর্তৃক অনুমোদিত স্থাপনার নকশা।
ঙ) প্রতিষ্ঠানটি লিমিটেড কোম্পানি হলে মেমোরেন্ডাম অব আর্টিকেল।

চ) প্রতিষ্ঠান সংক্রান্ত স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কর্তৃক অনাপত্তি সনদ।
ছ) বহুতল বা বাণিজ্যিক ভবন হলে (৭ তলা বা ২৪ মিটার বা তদূর্ধ্ব) ফায়ার সার্ভিসের ছাড়পত্র।
জ) গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ফায়ার সার্ভিস নির্ধারিত তথ্য বিবরণী।
২। আবেদন প্রাপ্তির পর ০৭ (সাত) কর্মদিবসের মধ্যে অধিদপ্তর কর্তৃক নিয়োজিত পরিদর্শকের মাধ্যমে সংশিষ্ট
প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয়।
৩। পরিদর্শনের পর অগ্নি প্রতিরোধমূলক পরামর্শ প্রদান করা হয়।
৪। পরামর্শ মোতাবেক কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার পর পুনরায় পরিদর্শন করা হয়।
৫। পরিদর্শন যুক্তিসঙ্গতভাবে সন্তোষজনক হলে সর্বোচ্চ ৯০ দিনের মধ্যে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।
৬। যুক্তিসঙ্গত কারণে লাইসেন্স প্রদানের বিষয়ে সন্তুষ্ট না হলে মহাপরিচালক লাইসেন্সের আবেদন প্রাপ্তির ১২০
(একশত বিশ) দিনের মধ্যে আবেদনকারীকে শুনানীর সুযোগ প্রদান করবেন।
৭। মহাপরিচালকের নিকট হতে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোন কর্মকর্তার কোন সিদ্ধান্তে কোন ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠান সংক্ষুব্ধ হলে
৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে বিষয়টি পুনঃ বিবেচনার জন্য মহাপরিচালকের নিকট আবেদন করবেন।
৮। উক্ত আবেদন প্রাপ্তির ৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে মহাপরিচালক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।
৯। উক্ত বিষয়ে মহাপরিচালকের সিদ্ধান্তে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত ফি প্রদান সাপেক্ষে সরকারের নিকট
আপীল করতে পারবেন।
১০। আপীল প্রাপ্তির ৬০ (ষাট) দিনের মধ্যে সরকার তৎসম্পর্কে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত প্রদান করবেন।

বহুতল বা বাণিজ্যিক ভবনের ছাড়পত্র

১। অগ্নি প্রতিরোধ ও নির্বাপন আইন-২০০৩ এর ৭নং ধারা অনুসারে ৭ তলা (২৪ মিটার) বা তদূর্ধ্ব ভবনের বা
বাণিজ্যিক ভবনের অগ্নি প্রতিরোধমূলক ছাড়পত্র প্রদান করা হয়।
২। স্থানীয় কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বা সরাসরি মহাপরিচালক বরাবর অনলাইনের মাধ্যমে সংশিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান আবেদন করবেন।
৩। আবেদনের সাথে ভবনের নকশা ও দলিল প্রদান করবেন।
৪। অতঃপর অত্র অধিপ্তর কর্তৃক মনোনীত পরিদর্শক ০৭ (সাত) কর্মদিবসের মধ্যে সংশিষ্ট ভবন পরিদর্শন করেন।
৫। পরিদর্শনের পর অগ্নি প্রতিরোধমূলক পরামর্শ প্রদান করা হয়।
৬। পরামর্শ মোতাবেক কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে শর্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ০৭ (সাত) কর্মদিবসের মধ্যে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়।
৭। পরিদর্শন যুক্তিসঙ্গত কারণে সন্তোষজনক না হলে ভবন ব্যবহারের অনুপযোগী মর্মে মহাপরিচালক ঘোষণা
করতে পারেন।
৮। ভবন ব্যবহারের অনুপযোগী ঘোষণার কারণে কোন ব্যক্তি সংক্ষব্ধ হলে তিনি উক্তরূপ ঘোষণার ৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে সরকারের নিকট আপীল করতে পারবেন।
৯। উক্ত আপীল প্রাপ্তির ৬০ (ষাট) দিনের মধ্যে সরকার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস

১। অত্র অধিদপ্তর স্থানীয়ভাবে বা আন্তঃজেলা পর্যায় রোগী পরিবহনের নিমিত্তে জনসাধারনের জন্য এ্যাম্বুলেন্স
সার্ভিস প্রদান করে থাকে।
২। এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের আওতায় শুধুমাত্র রোগীকে বাসা থেকে হাসপাতালে অথবা দুর্ঘটনার স্থান থেকে হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
৩। এ সেবার জন্য স্থানীয় পর্যায়ে বা পৌর এলাকায় ফোনের বা বার্তাবাহকের মাধ্যমে এ্যাম্বুলেন্স কল গ্রহণ করা
হয়।
৪। আন্তঃ জেলা পর্যায়ে বা দূরবর্তী কলের ক্ষেত্রে রোগী পরিবহনের জন্য নির্ধারিত ফরমপূরণপূর্বক পুর্ব অনুমোদন
নিতে হয়।

৫। রোগী পরিবহনের জন্য ভাড়ার হার নিম্নরুপ
ক) দেশের সকল মেট্রোপলিটন শহর এলাকাসহ সকল পৌর এলাকায় ১ মাইল/১ কিলোমিটার হতে
৫ মাইল/৮ কিলোমিটার পর্যন্ত ১০০ (এক শত) টাকা।
খ) ৫ মাইলের ঊর্ধ্বে হইতে ১০ মাইল অথবা ৮ কিলোমিটার হইতে ১৬ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রতিকল
১৫০ (একশত) টাকা।
গ) দূরবর্তী/আন্তঃজেলা কলের ক্ষেত্রে প্রতি মাইল ১৫ (পনরো) টাকা ও প্রতি কিলোমিটার ৯/- (নয়) টাকা।
৬। এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের আওতায় লাশ বহন করা হয় না।

অগ্নি প্রতিরোধমূলক মহড়া, পরামর্শ প্রশিক্ষণ সেবাঃ
১। উক্ত সেবা গ্রহণের জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বা সরাসরি মহাপরিচালক বরাবর আবেদন করতে হয়।
২। আবেদন প্রাপ্তির পর সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে অত্র অধিদপ্তর আর্থিক সংশেষ ও অন্যান্য শর্তাবলীসহ প্যাকেজ প্রস্তাব
প্রেরণ করে।
৩। সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠান উক্ত শর্ত পালনে সম্মত হলে অত্র অধিদপ্তরের মনোনীত কর্মকর্তা সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সহিত
প্রয়োজনীয় সমন্বয়সাধন পূর্বক নিম্নলিখিত সেবা প্রদান করে থাকে ঃ
ক) অগ্নি প্রতিরোধ ও নির্বাপন বিষয়ে পরামর্শ প্রদান।
খ) অগ্নি প্রতিরোধ ও নির্বাপন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান।
গ) অগ্নি প্রতিরোধ ও নির্বাপন বিষয়ে মহড়া পরিচালনা।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter